বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৪:৪৯ অপরাহ্ন

সাত জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৯ জন

অনলাইন নিউজ ডেস্ক ॥ কোনোভাবেই বন্ধ হচ্ছে না সড়ক দুর্ঘটনা। প্রতিদিনই দেশের বিভিন্ন সড়কে দুর্ঘটনায় ঝরে যাচ্ছে একাধিক প্রাণ। বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার ৭ জেলায় সড়কে নিহত হয়েছেন ৯ জন। এর মধ্যে বগুড়ায় ট্রাক চাপায় দুই মোটর সাইকেল আরোহী, রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে ট্রাকের সঙ্গে মোটর সাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই মোটর সাইকেল আরোহী, জয়পুরহাটে বাস-পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে পিকআপ চালক, মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার বাসের ধাক্কায় তিন বছরের শিশু, ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায় মহিন্দ্রা ট্রাক্টরে ১০ বছরের এক শিশু, রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে উপজেলায় ট্রাক চাপায় মোটর সাইকল আরোহী সরকারি কর্মকর্তা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগরে ট্রাক্টর উল্টে এক কিশোর নিহত হয়েছে।

বগুরা প্রতিনিধি জানান, বগুড়ার শেরপুর উপজেলার চান্দাইকোনা-ভবানীপুর আঞ্চলিক সড়কের জামনগর এলাকায় ট্রাক চাপায় মোটর সাইকেল চালকসহ দুইজন নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার সকালে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন মোটর সাইকেল চালক শেরপুর উপজেলার সুঘাট ইউনিয়নের মধ্যভাগ গ্রামের শরত আলীর ছেলে বেলাল হোসেন ও ভবানীপুর ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রামের নওশের আলীর ছেলে ফজর আলী খাজা।

স্থানীয়রা জানান, ফজর আলী খাজা পিংকি পরিবহণের বাসচালক ছিলেন। তিনি গাড়ি চালিয়ে রাতে চান্দাইকোনা আসেন। সেখান থেকে বাড়ি ফেরার জন্য একটি মোটর সাইকেল ভাড়া করে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে জামনগর এলাকায় পৌঁছালে দ্রম্নতগামী একটি ট্রাক তাদের চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই দুজন মারা যায়।

গোদাগাড়ী (রাজশাহী) প্রতিনিধি জানান, রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে দুই মোটর সাইকেলের সঙ্গে ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই যুবক নিহত হয়েছেন এবং অপর মোটর সাইকেল থাকা আরও দুই যুবক গুরুতর আহত হয়ে রামেক হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার বসস্তপুর এলাকায় রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ মহাসড়কে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন রাজশাহী নগরীর লক্ষ্ণীপুর এলাকার মোহাম্মদ আলী বকুলের ছেলে ইজাজ আহমেদ (২০) ও গোদাগাড়ী উপজেলার পিরিজপুর গ্রামের জাহিদ হোসেন (২০)।

গোদাগাড়ী মডেল থানার ওসি কামরুল ইসলাম জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ হতে রাজশাহীগামী একটি ট্রাক বসন্তপুরে পৌঁছালে রাজশাহীর দিক থেকে আসা দুইটি মোটর সাইকেলের মধ্যে একটির সঙ্গে ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় এবং অপর একটি মোটর সাইকেল পাশে গিয়ে ধাক্কা মারে। এতে সরাসরি ট্রাকে সংঘর্ষ করা মোটর সাইকেলের দুই আরোহী ঘটনাস্থলেই মারা যায়। অপর মোটর সাইকেল থাকা দুই যুবককে উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানান স্থানীয়রা। এই ঘটনায় ট্রাকের চালক ও হেলপার পলাতক রয়েছে বলে জানান।

এই বিষয়ে সবকিছু আইনগত প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে বলে জানান ওসি কামরুল ইসলাম।

জয়পুরহাট প্রতিনিধি জানান, জয়পুরহাটে বাস-পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে পিকআপ চালকের শরিফ রহমান সাগরের মৃতু্য হয়েছে। এতে গুরুতর আহত হয়েছেন আরও একজন। শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে পাঁচবিবি উপজেলার জয়পুরহাট-বগুড়া সড়কের বাগজানা এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শরিফ রহমান সাগর নিলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার নতুন বাবুপাড়া গ্রামের আজিজার রহমানের ছেলে। আহত জিৎ মহন্ত পাঁচবিবি উপজেলার শুভন মহন্তর ছেলে।

পাঁচবিবি থানার ওসি পলাশ চন্দ্র দেব জানান, নিহত পিকআপ ভ্যানচালক শরিফ চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে পিকআপ ভ্যানে আম নিয়ে নীলফামারীর সৈয়দপুরে যাচ্ছিলেন। পথে পাঁচবিবি উপজেলার বাগজানা এলাকায় হিলি থেকে ঢাকাগামী হানিফ পরিবহণের সঙ্গে পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই পিকআপচালক শরিফ মারা যান।

ওসি আরও জানান, এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন একজন। তাকে উদ্ধার করে পাঁচবিবি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

মাদারীপুর প্রতিনিধি জানান, মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট তেলের পাম্পের সামনে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে শুক্রবার বেলা ১টার দিকে বাসের ধাক্কায় তিন বছরের হাফসা আক্তার নিহত ও দাদাসহ দুইজন আহত হয়েছেন। নিহত হাফসা আক্তার উপজেলার ঘোষালকান্দি গ্রামের হাফিজুল ফকিরের মেয়ে। হাফসার দাদা আহত হালিম ফকির (৬০) ও ভ্যানচালক এসকেন শেখকে (৫০) মুমূর্ষু অবস্থায় ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট তেলের পাম্পের সামনে যাত্রীবাহী একটি ভ্যানগাড়িতে করে দাদার সঙ্গে বাজার করে বাড়ি ফিরছিল হাফসা। পথে ভ্যানগাড়ি মোড় ঘোরার সময় পিছন থেকে আসা ঢাকাগামী বিএমএমএফ পরিবহণের একটি যাত্রীবাহী বাস সেটিকে ধাক্কা দেয়। এ সময় হাফসা আক্তার ঘটনাস্থলেই মারা যায় এবং দাদা হালিম ফকির ও ভ্যানচালক এসকেন শেখ আহত হন। পরে আহতদের উদ্ধার করে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

মাদারীপুর হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ টি এইচ এম রুহুল আমিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘাতক বাসটি আটক করা হয়েছে।

শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি জানান, মাদারীপুরে ঢাকামুখী যাত্রীবাহী দুটি বাসের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের পাঁচ্চর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে দুটি বাসের অন্তত ১৫ যাত্রী আহত হয়েছেন।

হাইওয়ে পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সকালে মাদারীপুর শহর থেকে সার্বিক ও সোনালী নামের দুটি বাস যাত্রী নিয়ে বাংলাবাজার ঘাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। বাস দুটি ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে পাল্লা দিয়ে চলছিল। সকাল ১০টার দিকে সার্বিক পরিবহণ নামের বাসটি শিবচর উপজেলার পাঁচ্চর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় যাত্রী নামিয়ে দ্রুত চলতে শুরু করে। এ সময় পেছন থেকে সোনালী পরিবহণের বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সার্বিক পরিবহণকে ধাক্কা দেয়। এতে দুই বাসের অন্তত ১৫ যাত্রী আহত হন।

পরে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় আহত যাত্রীদের উদ্ধার করে পাঁচ্চরের রয়েল হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। এ ছাড়া আহত দুজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা ও ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী চন্দন রায় বলেন, ‘সার্বিক বাসটি একটু স্লো করে (গতি কমিয়ে) যাত্রী নামিয়ে আবার জোরে টান শুরু করে। তখনই পেছনের বাসটি জোরে ধাক্কা দেয়। বিকট শব্দ শুনে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত যাত্রীদের উদ্ধার করি। ধাক্কায় দুটি বাসের ক্ষতি হয়েছে। সোনালী পরিবহণের সামনের গ্লাস ভেঙে গেছে। আর সার্বিক পরিবহণের পেছনের গ্লাসসহ অনেকটা অংশ ভেঙে গেছে।’

শিবচর হাইওয়ে পুলিশের উপপরিদর্শক আশরাফুল আলম বলেন, যারা আহত ছিলেন তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। বাস দুটি পুলিশি হেফাজতে আছে।

পাঁচ্চর রয়েল হাসপাতালে ব্যবস্থাপক জগদীশ চন্দ্র বলেন, সকালে দুই বাসের সংঘর্ষের ঘটনায় আহত ৮/৯ জন যাত্রী এখান থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে। মাথায় আঘাত পেয়েছেন অনেকেই।

শিবচর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গাজী সাখাওয়াত হোসেন বলেন, আশঙ্কাজনক অবস্থায় একজনকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। দুর্ঘটনাকবলিত বাস দুটি জব্দ করা হয়েছে।

রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি জানান, ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায় সড়ক দূর্ঘটনায় প্রাণ গেল বিশাল নামে (১০) বছরের এক শিশুর। বৃহস্পতিবার রাণীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ-কাতিহার সডকের ফুটানি টাউন বাজারের পশ্চিম পার্শ্বে গোগরা ব্রিজে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত বিশাল উপজেলার ৫নং বাচোর ইউনিয়নের ঢাংঢাং পাড়া গ্রামের হরেনের ছেলে। এলাকাবাসী জানান, দুপুরে বিশাল ব্রিজের পশ্চিম দিক থেকে বাইসাইকেলে আসছিল এ সময় পেছন থেকে আসা ইট বোঝাই মহিন্দ্রা ট্রাক্টর তাকে ধাক্কা দেয়। এতে ছিটকে পড়ে ঘটনাস্থলেই তিনি মৃতু্যবরণ করেন।

রাণীশংকৈল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস এম জাহিদ ইকবাল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি জানান, রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলায় ট্রাকচাপায় মোটর সাইকল আরোহী গোয়ালন্দ উপজেলা সহকারী দারিদ্র্য বিমোচন কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে গোয়ালন্দ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তির নাম মো. মজিবুর রহমান (৫২)। তিনি মানিকগঞ্জ জেলার সাটুরিয়া উপজেলার তেঘুড়ী গ্রামের মৃত মোজামম্মেল হকের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সকাল ১০টার দিকে উপজেলা সহকারী দারিদ্র্য বিমোচন কর্মকর্তা মো. মজিবুর রহমান অফিসের কাজের জন্য মোটর সাইকেলে করে উপজেলা থেকে মহাসড়ক দিয়ে গোয়ালন্দ বাজারের দিকে যাচ্ছিলেন। মোটর সাইকেলটি গোয়ালন্দ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পৌঁছালে পেছন থেকে আসা একটি পণ্যবাহী ট্রাক তাকে চাপা দিলে তিনি নিচে পড়ে যান। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কম্েপস্নক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

আহলাদীপুর হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. জিল্লুর রহমান দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ঘটনাস্থল থেকে ট্রাক ও মোটর সাইকেলটি উদ্ধার করে থানায় নেওয়া হয়েছে। ট্রাকের চালক ও সহকারী পলাতক রয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে ট্রাক্টর উল্টে রাকিব (১৪) নামে এক কিশোরের মৃতু্য হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় উপজেলার নাটঘর ইউনিয়নের খড়িয়ালা গ্রামে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত রাকিব খড়িয়ালা গ্রামের মৃত মুকাদ্দস মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও শিশুর পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, খড়িয়ালা গ্রামের একটি ইটভাটা থেকে ট্রাক্টরে ইট বোঝাই করে ট্রাক্টরের চালক ইঞ্জিনে চাবি রেখেই প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে চলে যায়। এই সুযোগে শিশু রাকিব ট্রাক্টরে উঠে ইঞ্জিন স্টার্ট দেয়। এতে ট্রাক্টরটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে ডোবায় পড়ে যায়। এতে রাকিব আহত হয়। আহত অবস্থায় পরিবারের লোকেরা রাকিবকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাকিবকে মৃত ঘোষণা করেন।

নবীনগর থানার শিবপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই নজরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Titans It Solution