মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:৪৭ পূর্বাহ্ন

শিশু আয়াতের ‘মাথার অংশ’ উদ্ধার

চট্টগ্রাম ব্যুরো, ই-কণ্ঠ অনলাইন ডেস্ক:: চট্টগ্রামে অপহরণের পর খুন হওয়া শিশু আলিনা ইসলাম আয়াতের মাথার অংশ উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) বলছে, যদিও চেহারা বিকৃত হয়ে গেছে, তবু মাথার অংশটি শিশু আয়াতেরই মনে হচ্ছে। তবে অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন পিবিআই চট্টগ্রাম বিভাগের পুলিশ সুপার নাজমুল হাসান।

বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) সকাল ১০টার দিকে নগরীর ইপিজেড থানার আকমল আলী রোডের শেষ প্রান্তে নালাসংলগ্ন স্লুইসগেট এলাকা থেকে মাথাটি উদ্ধার করা হয়।

এর আগে দুই পায়ের বিচ্ছিন্ন অংশ পাওয়া যায় বলে দাবি করে পিবিআই। এ নিয়ে শরীরের তিনটি খণ্ডিতাংশ উদ্ধার করা হলো।

নাজমুল হাসান বলেন, ‘মাথার যে অংশটি পাওয়া গেছে, সেটি মনে হচ্ছে শিশু আয়াতেরই। চেহারার অংশটিও আছে, তবে বিকৃত। ডিএনএ পরীক্ষার পর অধিকতর নিশ্চিত হওয়া যাবে। স্লুইচগেটে আটকে থাকা পানির মধ্যে জমা পলিথিনে তল্লাশি করে মাথাটি পাওয়া গেছে।

ঘটনাস্থল থেকে পিবিআই চট্টগ্রামের পরিদর্শক মুস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, তারা টানা ছয় দিন ধরে তল্লাশি কার্যক্রম চালাচ্ছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকালে পিবিআইয়ের একটি দল ঘটনাস্থলে গেলে স্থানীয় জেলেরা একটি মাথা দেখতে পাওয়ার কথা জানান। পরে মাথাটি উদ্ধার করে আলিনার পরিবারকে খবর দেওয়া হয়। পরিবার নিশ্চিত করেছে মাথাটি আলিনারই।

এর আগে বুধবার দুপুরে একই এলাকা থেকে বিচ্ছিন্ন দুই পায়ের অংশ পাওয়া যায়। সিটি করপোরেশন, সিডিএ, পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহযোগিতায় স্লুইসগেটের চারটি প্রকোষ্ঠের পানিপ্রবাহ বন্ধ করে দেওয়ার পর একটি প্রকোষ্ঠে আটকে যাওয়া পলিথিনে পা দুটি পাওয়া যায়।

গত ১৫ নভেম্বর বিকেলে নগরীর ইপিজেড থানার দক্ষিণ হালিশহর ওয়ার্ডের নয়ারহাট এলাকার বাসিন্দা সোহেল রানার মেয়ে চার বছর ১১ মাস বয়সী আলীনা ইসলাম আয়াত নিখোঁজ হয়। ১০ দিন পর ২৪ নভেম্বর পিবিআই আবির আলীকে গ্রেপ্তারের পর জানায়, আয়াতকে শ্বাসরোধে খুন করে লাশ কেটে ছয় টুকরো করে। এরপর সেগুলো সাগরে ভাসিয়ে দেয়।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Titans It Solution