বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ০৯:৪৭ অপরাহ্ন

মঞ্জুকে অব্যাহতি: খুলনায় বিএনপির আরও ৪০০ নেতাকর্মীর পদত্যাগ

খুলনা প্রতিনিধি:: বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদকের পদ থেকে নজরুল ইসলাম মঞ্জুকে অব্যাহতি দেওয়ার প্রতিবাদে খুলনা বিএনপিতে এখনো পদত্যাগ চলছে। সবশেষ বুধবার খুলনায় দলটি ও এর অঙ্গসংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের আরও ৩৯৫ নেতাকর্মী পদত্যাগ করেছেন। এর মধ্যে খালিশপুর থানা বিএনপি এবং অঙ্গসংগঠনের ৩৫০ নেতাকর্মী, মহানগর ও পাঁচ থানা মৎস্যজীবী দলের নেতাকর্মী রয়েছেন ৪৫ জন।

এর আগে গত শনিবার নগর বিএনপির কয়েকজন শীর্ষ নেতাসহ প্রায় ২০জন নেতাকর্মীর পদত্যাগের মধ্যদিয়ে শুরু হয় পদত্যাগের ধারাবাহিকতা। যা পরদিন রবিবার গণপদত্যাগে গিয়ে ঠেকে। সেদিন নগর বিএনপির শীর্ষ নেতা থেকে শুরু করে বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ডের প্রায় পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মী ইতোমধ্যে পদত্যাগ করেন।

এদিকে বুধবার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো খালিশপুর থানা বিএনপি, মহানগর ও পাঁচ থানা মৎস্যজীবী দলের পৃথক বিজ্ঞপ্তিতে আরও ৩৯৫ নেতাকর্মীর পদত্যাগের তথ্য জানানো হয়েছে। খালিশপুর থানা বিএনপির সভাপতি ফজলে হালিম লিটন ও মহানগর মৎস্যজীবী দলের সাধারণ সম্পাদক সায়মুন ইসলাম রাজ্জাক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এ নিয়ে পদত্যাগ করা নেতাকর্মীর সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে।

নতুন করে পদত্যাগকারীদের মধ্যে উল্লেখযোগ্যরা হলেন- খালিশপুর থানা বিএনপির সভাপতি ফজলে হালিম লিটন, সহ-সভাপতি নিজাম উর রহমান লালু, সহ-সভাপতি ও ১২ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি এইচ এম আবু সালেক, উপদেষ্টা ও নগর জাসাসের যুগ্ম আহ্বায়ক শামসুর রহমান, যুগ্ম সম্পাদক কাজী শফিকুল ইসলাম শফি, ১১ নম্বর ওয়ার্ড সভাপতি আশরাফ হোসেন, ৮ নম্বর ওয়ার্ড সভাপতি কাজী মাহবুবুল হক, সহ-সভাপতি আলমগীর হোসেন বাদশা, সাবেক সদস্য সচিব সাজ্জাদ আলী, উপদেষ্টা মোহাম্মদ আলী ফকির, কোষাধ্যক্ষ ও ১৩ নম্বর ওয়ার্ড সাধারণ সম্পাদক ইমতিয়াজ আলম বাবু, ১০ নম্বর ওয়ার্ড সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান খোকন, যুগ্ম সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি, প্রচার সম্পাদক এসএম জসিম উদ্দিন, স্বেচ্ছাসেবক দলের কাজী ফজলুল করিম টিটু, জাসাস নগরের যুগ্ম আহ্বায়ক শাহানাজ পারভীন, সিনিয়র সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী ইকরাম মিন্টু, কাজী শামীম, বাবুল মুন্সি, শহিদুল ইসলাম, নূর-এ-আব্দুল্লাহ, বারেক হাওলাদার, কালাম হোসেন, আবু হোসেন আবু, জাফর হাওলাদার, কাজী সেলিম, আব্দুল মালেক, কাজী মিজানুর রহমান তারা, জাহিদুল ইসলাম মল্লিক, শেখ আব্দুল খালেক, মো. ইউসুফ আলী, হেমায়েত উদ্দিন, মঞ্জুরুল ইকবাল টিটো, আলতাফ হোসেন, শহিদ মহিউদ্দিন বাবু, দেলোয়ার হোসেন, নজরুল ইসলাম, করিম বাবু, ইসমাইল হোসেন, মজিবর রহমান, আশিকুর রহমান আশিক, হাফিজার শেখ, আব্বাস ফকির, মনিরুল ইসলাম মনির, শহিদুল ইসলাম বাবু, গোলাম রাব্বি, আবুল কালাম, আব্দুল হালিম, মোখলেছুর রহমান, মনির হোসেন, আসাদুজ্জামান আসাদ, জামাল হোসেন ভুট্টো, রফিকুল ইসলাম সুমন ও শাহিন পাটোয়ারী প্রমুখ।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে পদত্যাগকারী নেতারা উল্লেখ করেন, নজরুল ইসলাম মঞ্জু ৪৪ বছরের একজন পরীক্ষিত নেতা। তিনি বিপদে-আপদে নেতাকর্মীদের পাশে থেকেছেন। তাকে অবমূল্যায়নের কারণে খালিশপুর থানা বিএনপি ও এর আওতাধীন ৯ ওয়ার্ডের সকল অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের ৩৫০ নেতাকর্মী পদত্যাগ করলাম। একই সঙ্গে আমরা নগরের আহ্বায়ক কমিটির সকল কর্মকাণ্ড থেকে নিজেদের বিরত রাখলাম।

খালিশপুর থানা বিএনপির সভাপতি ফজলে হালিম লিটন বলেন, আমাদের বিভিন্ন ইউনিটের ৩৫০ নেতাকর্মী পদত্যাগ করেছেন।

অপরদিকে, মৎস্যজীবী দলের পদত্যাগকারী নেতাদের মধ্যে রয়েছেন মহানগর মৎস্যজীবী দলের সাধারণ সম্পাদক সায়মুন ইসলাম রাজ্জাক, সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. শাহজাহান শেখ, সহ-সভাপতি মো. খালেক গাজী, সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. আসাদুর রহমান সানা, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মারুফ হোসেন, দফতর সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, সমাজকল্যাণ সম্পাদক আব্দুল গফুর সরদার, প্রচার সম্পাদক মো. অলি খাঁ, তথ্য বিষয়ক সম্পাদক মো. হালিম কাজী, সহ তথ্য বিষয়ক সম্পাদক মো. হারুনুর রশিদ, আইন বিষয়ক সম্পাদক মো. আবু সালাম, সদর থানার সাধারণ সম্পাদক মো. জামাল হোসেন, সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. সিরাজ হাওলাদার, সহ-সভাপতি মো. কালাম হোসেন, সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. ইউসুফ খাঁ, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল কাদের শেখ, দফতর সম্পাদক মো. মিকির হোসেন, সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. সোহরাব মাতুব্বর, সোনাডাঙ্গা থানা সভাপতি বিএম রবিউল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মো. ফরিদ শেখ, সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. শাহজাহান হোসেন, সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক মো. গোলাম রসুল, সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. উজ্জ্বল গাজী, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাহা হোসেন, দফতর সম্পাদক মো. আলমগীর হোসেন, খালিশপুর থানার সভাপতি মো. জাকির হোসেন, সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. আল আমিন, সাধারণ সম্পাদক মো. রবিউল ইসলাম, সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক মো. স্বপন, সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. মিন্টু শিকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সোহাগ হোসেন, দফতর সম্পাদক মো. আতিয়ার রহমান, দৌলতপুর থানার সিনিয়র সহ-সভাপতি সিরাজ হোসেন, সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক মো. মোস্তফা গাজী, সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. বারেক, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. বেল্লাল হোসেন, দফতর সম্পাদক মো. সুমন হোসেন, খানজাহান আলী থানার সভাপতি মোল্যা লোকমান হোসেন, সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. এজাজুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মো. শাহজাহান শেখ, সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক জহিরুল ইসলাম, সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. ইমরান হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জাহিদ হোসেন, দফতর সম্পাদক মো. আব্বাস আলী ও প্রচার সম্পাদক মো. আরশাদ আলী।

মহানগর মৎস্যজীবী দলের সাধারণ সম্পাদক সায়মুন ইসলাম রাজ্জাক বলেন, নজরুল ইসলাম মঞ্জুকে অব্যাহতি দেওয়ার প্রতিবাদে আমিসহ মহানগর মৎস্যজীবী দলের ৪৫ জন নেতাকর্মী পদত্যাগ করেছি।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Titans It Solution