শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ০৫:১৭ অপরাহ্ন

বিএনপি এক নমিনেশন তিনজনকে দেয়: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতি‌বেদক, ই-কণ্ঠ অনলাইন ডেস্ক:: বিএনপি এক নমিনেশন তিনজনকে দেয় বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বিএনপির মনোনয়ন বাণিজ্য প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি জিতবে কীভাবে? ২০১৮ সালের ভোটে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর একজনকে মনোনয়ন দেয়, রিজভী একজনকে মনোনয়ন দেয়, লন্ডন থেকে আরেকজন মনোনয়ন দেয়। বিএনপি ভোটে জিতবে কীভাবে তারা তো এক নমিনেশন তিনজনকে দেয়। দুই নেতা আমার কাছে এসে বলেছে। সিলেটের এনাম চৌধুরী বলেছেন, মনোনয়নের জন্য অনেক টাকা চেয়েছে, দিতে পারিনি বলে মনোনয়ন দেওয়া হয়নি।

মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ছাত্রলীগের ৩০তম জাতীয় সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

বাংলাদেশের যত অর্জন তা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে হয়েছে মন্তব্য করে শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি স্বাধীনতাকে বিশ্বাস করে না বলেই তারা দেশের উন্নয়ন-অগ্রগতি নিয়ে নানান কথা বলে।

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনগণ আবারও আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবে বলে আশা প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ গণতন্ত্র ও জনগণের ক্ষমতায় বিশ্বাসী। এজন্য আওয়ামী লীগ শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করে। বিএনপির জানা উচিত জনগণের ভোট চুরি করলে তারা ছেড়ে দেয় না। আওয়ামী লীগ ভোট চুরি করে না। জনগণ আমাদের ভোট দেয় আমরা ক্ষমতায় আসি। আওয়ামী লীগের সবসময় গণতন্ত্রকে বিশ্বাস করে জনগণের ক্ষমতাকে বিশ্বাস করে। আওয়ামী লীগ যতবার ক্ষমতা আসছে জনগণের ভোটের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসছে। জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবেই আমাদের ভোট দেয়।

শেখ হাসিনা বলেন, জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করা হয়েছিল। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরে জিয়াউর রহমান ক্ষমতা দখল করে। বাংলাদেশ দুর্দশাগ্রস্ত ছিল। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পরে এখন দুর্দশাগ্রস্ত দেশ নাই। আওয়ামী লীগের লক্ষ ছিল, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় মানুষকে জাগ্রত করা, মানুষকে অধিকার ফিরিয়ে দেওয়া, সেটা আমরা করছি।

খালেদা জিয়া, তারেক জিয়া এরা কারা প্রশ্ন তুলে সরকারপ্রধান বলেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় জড়িত খালেদা জিয়া ও তারেক জিয়া। তারেক জিয়া ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলার আসামি এটা সবাই জানে। এরা দেশের মানুষের জন্য কোনো কাজ করে না। এদের সঙ্গে দেশের অনেক বুদ্ধিজীবী হাত মিলায়। এসব বুদ্ধিজীবী বিএনপির সঙ্গে হাত মিলায় গণতন্ত্রের কথা বলে। এরা বুদ্ধিজীবী না, তারা বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী।

ছাত্রলীগ করোনার মধ্যে কৃষকের ধান কেটে দিয়েছে উল্লেখ তিনি বলেন, দেশের মধ্যে ছাত্রলীগ সবসময় অগ্রণী ভূমিকা পালন করে। সবসময় ছাত্রলীগকে এই ভূমিকা পালন করতে হবে।

ছাত্রলীগ সবসময় গণতন্ত্রের জন্য কাজ করে, দেশের মানুষের জন্য কাজ করে। ছাত্রলীগ করোনার মধ্যে মানবিক কাজ করেছে। এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। আওয়ামী লীগের লক্ষ্য দেশের উন্নয়ন করা। সেই লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ।

ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়ের সভাপতিত্বে সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, ড. হাছান মাহমুদ, আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক, মির্জা আজম, এসএম কামাল হোসেন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়াসহ কেন্দ্রীয় নেতাকর্মী ও সাবেক ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

সম্মেলন সঞ্চালনা করেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Titans It Solution