শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ১১:০২ অপরাহ্ন

বায়ার্নকে বিদায় করে সেমিফাইনালে পিএসজি

স্পোর্টস ডেস্ক:: গত চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালের মতোই বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ১-০ গোলে হারলো প্যারিস সেন্ত জার্মেই। তারপরও তাদের চোখে-মুখে বিজয়ের হাসি। মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) কোয়ার্টার ফাইনালের দ্বিতীয় লেগ হেরেও চ্যাম্পিয়নদের বিদায় করে সেমিফাইনালে ফরাসি চ্যাম্পিয়নরা। দুই লেগ শেষে স্কোর ৩-৩ হলেও অ্যাওয়ে গোল এগিয়ে রেখেছে নেইমার-এমবাপ্পেদের।

প্রথমার্ধের গল্পটা ছিল মানুয়েল ন্যয়ারের বীরত্বপূর্ণ পারফরম্যান্স আর নেইমারের দুর্ভাগ্যের। ৩৪ মিনিটের মধ্যে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের তিনটি প্রচেষ্টা নস্যাৎ করে দেন জার্মান গোলকিপার। কিছুক্ষণ পরে নেইমারের দুটি শটের একটি লাগে বারে, আরেকটি আঘাত করে পোস্টে, তাও মাত্র দুই মিনিটের ব্যবধানে।

৩৭ মিনিটে ফ্রি কিক থেকে আনহেল দি মারিয়ার শট বায়ার্নের খেলোয়াড় কিংসলে কোমান ফিরিয়ে দিলে বল পান নেইমার। ডান পায়ে ব্রাজিলিয়ান তারকা লক্ষ্যে বল বাড়ান, কিন্তু তা বারে লেগে চলে যায় মাঠের বাইরে। ৩৯ মিনিটে আবারও নেইমারের কপাল পোড়ে। এমবাপ্পের ডিফেন্স ভেদ করা পাসে তার শট লাগে গোলপোস্টে।

দারুণ সুযোগ নষ্টের খেসারত পিএসজিকে দিতে হয়েছে পরের মিনিটে। ৪১তম মিনিটে দাভিদ আলাবার শট স্বাগতিক গোলকিপার কেইলর নাভাসের পায়ে লেগে উঁচুতে ওঠে। এরিক ম্যাক্সিম চুপো-মোটিং লাফিয়ে হেড করে লক্ষ্যভেদ করেন। লিড নিয়ে স্বস্তি ফিরে পায় গতবারের ইউরোপ জয়ীরা।

৪৪ মিনিটে আবার নাভাসের পরীক্ষা নেয় বায়ার্ন। বক্সের বাইরে থেকে আলাবার বুলেট গতির শট ঝাঁপিয়ে রক্ষা করেন স্প্যানিশ গোলকিপার। মিনিট খানেক পর প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে লেরয় সানের দুর্বল শট সহজেই রুখে দেন নাভাস।

বিরতির পর আলাবার একটি শট গোলবারের পাশ দিয়ে চলে যায়। পিএসজি আরেকটি সুবর্ণ সুযোগ পায় ৫৩ মিনিটে। আবারও নেইমারের আফসোস। দি মারিয়া ডান পাশ থেকে ন্যয়ারকে ফাঁকি দিয়ে গোলমুখের সামনে বল বাড়ান, কিন্তু ফাঁকা জাল পেয়েও কয়েক ইঞ্চির জন্য ব্রাজিলিয়ান তারকা বলের সঙ্গে সংযোগ তৈরি করতে পারেননি। জেরোমে বোয়েটাং বল বিপদমুক্ত করেন।

৭৮ মিনিটে মাঝমাঠ থেকে বল নিয়ে একাই দৌড়ে বায়ার্নের বক্সে ঢুকে লক্ষ্যভেদ করেন এমবাপ্পে, কিন্তু বল জালে জড়ানোর পর রেফারি অফসাইডের বাঁশি বাজান। শেষ দিকে সানে দারুণ ড্রিবলে শট নিলেও গোলবারের সামনে দিয়ে মাঠের বাইরে যায় বল। প্রাণান্তকর চেষ্টা করেও প্রয়োজনীয় দ্বিতীয় গোলের দেখা পায়নি বায়ার্ন। পিএসজি দুর্ভেদ্য রক্ষণ গড়ে তোলে। আর ম্যাচ শেষের বাঁশি বাজার পরে হেরেও জয় উৎসব করে স্বাগতিকরা।

আরেক ম্যাচে চেলসিও পোর্তোর কাছে হেরে গেছে ১-০ গোলে। স্পেনের সেভিয়েতে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে হোম ম্যাচ খেলতে নেমেছিল ব্লুরা। দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ের পঞ্চম মিনিটে একমাত্র গোল করেন মেহদী তারেমি। দ্বিতীয় লেগ হেরেও প্রথম লেগে ২-০ গোলে জেতায় ২-১ গোলের অগ্রগামিতায় শেষ আটের বাধা পেরোয় চেলসি, ২০১৪ সালের পর প্রথমবার চ্যাম্পিয়নস লিগ সেমিফাইনালে তারা।

পিএসজি ও চেলসির সেমিফাইনাল প্রতিপক্ষ চূড়ান্ত হবে বুধবার (১৪ এপ্রিল) রিয়াল মাদ্রিদ-লিভারপুল ও বরুশিয়া ডর্টমুন্ড-ম্যানসিটির ম্যাচ শেষে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Titans It Solution