সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০৩:৩৫ পূর্বাহ্ন

পেলোসি ফিরতেই আক্রমণের প্রস্তুতি? তাইওয়ান সীমান্তে ক্ষেপনাস্ত্রের মহড়া চিনের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ই-কণ্ঠ টোয়েন্টিফোর ডটকম ॥ মার্কিন হাউস স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি তাইপেই থেকে রওনা হওয়ার কয়েক ঘন্টা পরেই চিনের ইস্টার্ন মিলিটারি কমান্ড বৃহস্পতিবার জানিয়েছে যে তাইওয়ান প্রণালীর পূর্ব অংশের নির্দিষ্ট এলাকায় দূরপাল্লার সুনির্দিষ্ট হামলা চালিয়েছে তাঁরা। এই ঘটনাকে পরকল্পিত অনুশিলন হিসেবে বর্ননা করেছে তারা।

গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক শিপিং লেনের কাছাকাছি এলাকায় এই প্রদর্শন তাইওয়ানকে ঘিরে চিনের সর্বকালের সর্ববৃহৎ সামরিক মহড়া বলে জানা গিয়েছে। পেলোসি বুধবার তাইওয়ান থেকে বেরিয়ে যান। বেজিংয়ের হুমকি অস্বীকার করেই এখানে যান তিনি। আমেরিকা এই স্ব-শাসিত দ্বীপটিকে স্বতন্ত্র অঞ্চল হিসাবে দেখে।

গত ২৫ বছরে পেলোসি সর্বোচ্চ প্রফাইলের মার্কিন নেতা যিনি তাইওয়ান সফর করলেন। তিনি বলেন যে তার সফর এটি “দ্ব্যর্থহীনভাবে স্পষ্ট” করেছে যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাইওয়ানের মত একটি গণতান্ত্রিক বন্ধু দেশকে ছেড়ে দেবে না। বৃহস্পতিবার সকালে চিনা নৌবাহিনীর জাহাজ এবং সামরিক বিমান অল্প সময়ের জন্য তাইওয়ান প্রণালী মধ্যরেখা অতিক্রম করে।

তাইওয়ান সূত্র জানা গিয়েছে এই কথা। চিন বুধবার তাইওয়ানের প্রধান দ্বীপের চারপাশে সামরিক মহড়া শুরু করেছে, চিনের সরকারি মিডিয়া সূত্রে এই খবর জানানো হয়েছে। তাঁর সফর বেজিং-এ চুরান্ত সমালচিত হয়েছে।

চিনের রাষ্ট্রীয় মিডিয়া জানিয়েছে এই মহড়া, রাত ১২ টার সময় শুরু হয়। এই মহড়ার সঙ্গে ‘লাইভ-ফায়ারিং’ জড়িত বলেও জানানো হয়েছে। চিনের সরকারি গণমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, স্থানীয় সময় দুপুরে দ্বীপের চারপাশে ছয়টি চিহ্নিত অঞ্চলে লাইভ-ফায়ার ড্রিল শুরু হয়েছে। সিনহুয়া নিউজ এজেন্সি অনুসারে, চিনা পিপলস লিবারেশন আর্মি (পিএলএ) এর ইস্টার্ন থিয়েটার কমান্ড বুধবার তাইওয়ান দ্বীপের উত্তর, দক্ষিণ-পশ্চিম এবং দক্ষিণ-পূর্বের জল এবং আকাশসীমায় যৌথ যুদ্ধ প্রশিক্ষণ মহড়ার অয়োজন করেছে।

ইস্টার্ন থিয়েটার কমান্ডের অধীনে মহড়ায় নৌবাহিনী, বিমান বাহিনী, রকেট ফোর্স, স্ট্র্যাটেজিক সাপোর্ট ফোর্স এবং লজিস্টিক সাপোর্ট ফোর্সের সৈন্যরা অংশগ্রহণ করে। সিনহুয়া আরও জানিয়েছে, ‘যৌথ প্রতিরোধ, সমুদ্রের লক্ষ্যবস্তুতে আক্রমণ, স্থলের লক্ষ্যবস্তুতে হামলা, এবং আকাশপথ নিয়ন্ত্রণ অপারেশনের মত প্রশিক্ষণের উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করা হয়েছে এবং সামরিক অভিযানে সেনাদের যৌথ যুদ্ধ ক্ষমতা পরীক্ষা করা হয়েছে।’

চিন দূরপাল্লার বিস্ফোরক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে বলে এক বিবৃতি তে জানিয়েছে পিপলস লিবারেশন আর্মির ইস্টার্ন থিয়েটার কমান্ড। তারা আরও বলেছে যে এটি তাইওয়ানের পূর্ব জলসীমার তিনটি ভিন্ন এলাকায় একাধিক ক্ষেপণাস্ত্র আক্রমণ করেছে। চিনের জাতিয় সংবাদমাধ্যম সিসিটিভিতে একটি গ্রাফিকে দেখা গিয়েছে যে সেগুলি উত্তর, পূর্ব এবং দক্ষিণে ঘটেছে।

জাপানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক অনুমান করেছে যে চারটি মিসাইল তাইওয়ানের রাজধানী শহর তাইপেইয়ের দিয়ে মূল ভূখ- অতিক্রম করেছে। তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক এই দাবি অস্বীকার করেনি। তাঁরা জানিয়েছে ফ্লাইট পথটি ‘বায়ুমন্ডলের বাইরে ছিল এবং এটি তার বিস্তীর্ণ অঞ্চলের জন্য ক্ষতিকারক নয়।’

জাপানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী নোবুও কিশি বলেছেন, চিনের ছোঁড়া পাঁচটি ক্ষেপণাস্ত্র জাপানের প্রধান দ্বীপগুলির দক্ষিণে জাপানের এক্সক্লুসিভ ইকোনমিক জোন দ্বীপ হেটেরুমায় পড়েছে। তিনি বলেন, চিনের ছোঁড়া ক্ষেপণাস্ত্র জাপানে পড়াকে ‘জাপানের জাতীয় নিরাপত্তা এবং জাপানের জনগণের নিরাপত্তার জন্য গুরুতর হুমকি।‘

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Titans It Solution