বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:১২ অপরাহ্ন

সাবিনার হ্যাটট্রিকে ভুটানকে ৮ গোলে উড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ

মুজিবুর রহমান বাবু, ই-কণ্ঠটোয়েন্টিফোর ডটকম ॥ দারুন ছন্দে খেলল বাংলাদেশের নারী ফুটবল দল। চলতি মেয়েদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে আরও একবার গোল উৎসব করলো বাংলাদেশ। বাংলাদেশের প্রথম গোলের দেখা মিলল ১ মিটিট ৩৫ সেকেন্ডেই, ছড়ানো শটে।

আসরের সেমিফাইনালে ভুটানকে ৮-০ গোলের বড় ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে উঠে গেছেন গোলাম রব্বানি ছোটনের শিষ্যরা। হ্যাটট্রিক উপহার দিলেন অধিনায়ক সাবিনা খাতুন। গোলের সৌরভ ছড়ালেন কৃষ্ণা-ঋতুপর্ণারাও। ভুটানকে গুঁড়িয়ে মেয়েদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠল বাংলাদেশ। সকাল থেকেই কাঠমান্ডুর আকাশ মেঘলা।

খেলা শুরুর আগে দুপুরে হয়েছে ভারী বৃষ্টি আর সেই বৃষ্টিতে নেপালের কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামের শুক্রবার ১৬ সেপ্টেম্বর মাঠ হয়ে যায় পিচ্ছিল, কাদাময়। এমন কাদাভরা মাঠেও চোখজুড়ানো ফুটবল উপহার দিল বাংলাদেশের মেয়েরা। দুই অর্ধে চারটি করে গোল করে বাংলাদেশ। সাবিনা করেন তিন গোল। একটি করে গোল স্বপ্না, কৃষ্ণা রানী সরকার, ঋতুপর্ণা চাকমা, মাসুরা পারভীন ও তহুরা খাতুনের। এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো সাফের ফাইনালে উঠল বাংলাদেশ।

এই জয়ে দ্বিতীয়বারের মতো সাফের ফাইনালে পৌঁছে গেল বাংলাদেশ। এর আগে ২০১৬ সালে ভারতের শিলিগুড়ির সাফের প্রথম ফাইনালে খেলেন সাবিনা খাতুনেরা। সেবার সেমিফাইনালে বাংলাদেশ ৬-০ গোলে হারায় মালদ্বীপকে।

সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় দ্বিতীয় সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবে ভারত ও নেপাল। বিজয়ী দলের বিপক্ষে বাংলাদেশে শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে নামবে ১৯ সেপ্টেম্বর।

ফাইনালে ওঠার এই ম্যাচে সাবিনা হ্যাটট্রিক করেছেন। ১টি করে গোল করেছেন সিরাত জাহান, ঋতুপর্ণা চাকমা, কৃষ্ণা রানি সরকার, মাসুরা পারভীন ও তহুরা খাতুন। ভুটানের বিপক্ষে এখন পর্যন্ত সব মিলিয়ে ৮টি গোল করলেন সাবিনা। জাতীয় দলের হয়ে সাবিনার গোলসংখ্যা ৩২। চলতি সাফে এটা সাবিনার দ্বিতীয় হ্যাটট্রিক। প্রথম হ্যাটট্রিক পাকিস্তানের বিপক্ষে।

পঞ্চম মিনিটে মারিয়া মান্দার শট সরাসরি গোলরক্ষকের গ্লাভসে জমে যায়। একটু পরই পোস্ট ছেড়ে বেরিয়ে বক্সের বাইরে এসে ভুটানের আক্রমণ ভেস্তে দেন গোলরক্ষক রুপনা চাকমা।

দ্বাদশ মিনিটে বাঁ দিক দিয়ে আক্রমণে ওঠা স্বপ্না প্রতিপক্ষের এক ডিফেন্ডারের চার্জে পড়ে যান। বেশ কিছুক্ষণ চিকিৎসা নেওয়ার পর খোঁড়াতে খোঁড়াতে মাঠ ছাড়েন এই ফরোয়ার্ড। বদলি নামেন ঋতুপর্ণা। পাঁচ মিনিট পর গোলরক্ষককে কাটিয়ে দূরূহ কোণ থেকে দারুণ গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সাবিনা।

মাঝমাঠের একটু উপর থেকে নিখুঁত ক্রসে সুর বেঁধে দিয়েছিলেন মারিয়া। ২৫ মিনিটে মনিকার ক্রসে কৃষ্ণা পা ছুঁইয়েছিলেন, কিন্তু বল যায় পোস্টের বাইরে। ভালো সুযোগ নষ্টের হতাশায় মাথায় হাত উঠে যায় এই ফরোয়ার্ডের। ৩০ মিনিটে মনিকার আড়াআড়ি ক্রসে কৃষ্ণার হেড এক ড্রপ খেয়ে জালে জড়ালে ম্যাচে চালকের আসনে বসে বাংলাদেশ।

দুটি পরিবর্তন এনে দ্বিতীয়ার্ধ শুরু করে বাংলাদেশ। দ্বিতীয়ার্ধে বাংলাদেশ ভুটানের জালে দিয়েছে আরও চার গোল। ৫৩ মিনিটে সানজিদার পাসে সাবিনা করেন ৫-০। এরপর ৫৬ মিনিটে ম্যাচের ষষ্ঠ গোলটি করেছেন মাসুরা। বক্সের বাইরে সাবিনার ফ্রি কিক গিয়ে পড়ে ভুটানের গোলরক্ষক সঙ্গীতার গ্লাভসে।

কিন্তু সেই বলটি হাত ফসকে গেলে আলতো টোকায় মাসুরা বল জালে জড়ান। একটু পর সানজিদার শট ক্রসবার কাঁপায়। ৮০তম মিনিটে বাংলাদেশ জালে বল জড়ালেও বাজে অফসাইডের বাঁশি। ৮৮ মিনিটে বদলি হিসেবে নামা তহুরা করেন সপ্তম গোল। ইনজুরি সময়ে নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করে দলের জয় ৮-০ করেন অধিনায়ক সাবিনা খাতুন।

টানা চার জয়ে ফাইনালে উঠল বাংলাদেশ। মালদ্বীপকে ৩-০ গোলে হারিয়ে গ্রুপ পর্ব শুরু করা মেয়েরা দ্বিতীয় ম্যাচে পাকিস্তানকে উড়িয়ে দেয় ৬-০ ব্যবধানে। এরপর প্রতিযোগিতার পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন ভারতকে ৩-০ গোলে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেরা চারে উঠে আসে বাংলাদেশের নারী ফুটবল দল।

বাংলাদেশ দল ॥ রুপনা চাকমা, আঁখি খাতুন, শিউলি আজিম (নীলুফার ইয়াসমিন), মাসুরা পারভীন, মারিয়া মান্দা (স্বপ্না রানী), মনিকা চাকমা (শামসুন্নাহার জুনিয়র), সানজিদা আক্তার, শামসুন্নাহার, কৃষ্ণা রানী সরকার (তহুরা), সিরাত জাহান (ঋতুপর্ণা), সাবিনা খাতুন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Titans It Solution