শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ০৫:৩৭ অপরাহ্ন

ভালুকা উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হাজী রফিকুল ইসলাম

আবুল বাশার শেখ, ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি:: ময়মনসিংহের ভালুকায় উপজেলা আওয়ামী লীগের আগামী ৩০ নভেম্বর ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সমাজ সেবক, শিক্ষানুরাগি, দানবীর, সফল শিল্পপতি, হাজী রফিকুল ইসলাম ট্রাষ্ট হাসপাতালের মালিক, আওয়ামী পরিবারের সন্তান ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক হাজী মোঃ রফিকুল ইসলাম উপজেলা আওযামী লীগের সাধারন সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পেতে চান।

হাজী মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিক জামিরদিয়া মাস্টারবাড়ি এলাকার সম্ভ্রান্ত আব্দুল গনি মাস্টার পরিবারে ১৯৭১ সালে জন্ম গ্রহন করেন। তার পিতা নাম মরহুম হাজী মতিউর রহমান, মাতা আলহাজ্ব মোছাঃ আমেনা খাতুন। ৩ ভাই ও ৪ বোনের মাঝে তিনি সবার ছোট। বড় ভাই আলহাজ্ব অবদুর রশিদ আসপাডা পরিবেশ উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ও সফল ব্যবসায়ী। মেঝো ভাই আব্দুর রহিম ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি ও সফল ব্যবসায়ী। আলহাজ্ব মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিক বিকাশের ৭ উপজেলার ডিস্টিভিউটর এবং স্কয়ার গ্রুপের অন্যতম ব্যবসায়ী শিক্ষানুরাগি হিসাবে তাঁর বেশ সুনাম রয়েছে। তিনি আব্দুল গনি একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা ও আব্দুল গনি বৃত্তি ফাউন্ডেশনের দাতা। প্রতি বছর এ ফাউন্ডেশন থেকে শতাধিক মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের বৃত্তি দেয়া হয় এবং ডাকাতিয়া শহীদ স্মৃতি বৃত্তি ফাউন্ডেশনের আজীবন পৃষ্ঠপোষক।

এ ছাড়াও আজীবন দাতা হিসাবে রয়েছেন, হবিরবাড়ি ইউনিয়ন সোনারবাংলা উচ্চ বিদ্যালয়, পাড়াগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়, বাটাজোর সোনার বাংলা মহা-বিদ্যালয়, মল্লিকবাড়ি শহীদ নাজিম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়, আজীবন দাতা সদস্য ঝালপাজা উচ্চ বিদ্যালয়, প্রতিষ্ঠাতা দাতা সদস্য আব্দুল গনি উচ্চ বিদ্যালয়, সভাপতি হবিরবাড়ী এতিমখানা মাদ্রাসা এবং পার্শ্ববর্তী শ্রীপুর উপজেলার আব্দুল আউয়াল ডিগি কলেজের বিদ্যুতসাহী সদস্য। ছাত্র জীবনে নাসিরাবাদ কলেজ ছাত্রলীগের সক্রিয় সদস্য হিসেবে যাত্রা শুরু করে ২০০৩ সালে হবিরবাড়ী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড শাখা আ’লীগের সদস্য, ২০০৬ সালে হবিরবাড়ী ইউনিয়ন ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির অর্থ বিষয়ক সম্পাদক, ২০০৯ সালে আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের ময়মনসিংহ জেলা শাখার আহ্বায়ক এবং ২০১৮ সালে ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক হিসাবে আওয়ামী লীগের সমস্ত কর্মকান্ডে ওতপ্রোতভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তার পরিবার এক কথায় আওয়ামী পরিবার হিসেবে এলাকায় পরিচিত। তার বড় ভাবি ময়মনসিংহ মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদিকা ও ভালুকা উপজেলা পরিষদের নির্বাচিত মহিলা ভাইসচেয়ারম্যান। ভাতিজা আলমগীর হোসেন সোহেল পৌর যুবলীগের সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। মেঝু ভাই আব্দুর রহিম ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ছিলেন ওই সময় বিএনপি-জামায়াতে মামলার স্বীকার হয়েছেন তার বাবাসহ এ পরিবারটি অর্থনৈতিক ভাবেও হয়েছে ক্ষতিগ্রস্থ। উনার শ্বশুর বীর মুক্তিযোদ্বা গাজী লাল মাহমুদ সরকার হবিরবাড়ী ইউনিয়নের সাবেক মুক্তিযোদ্বা কমান্ডার ও আওয়ামীলীগ নেতা।

১০নং হবিরবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্বা হাজী নিজাম উদ্দিন জানান, হাজী রফিকুল ইসলামের বাবা আমাদের সাথে আওয়ামীলীগ করতেন। রফিক উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের দলীয় প্রতিটি প্রোগামেই সক্রিয় অংশ গ্রহন ও আর্থিক সহযোগিতা করে থাকেন।

হাজী রফিকুল ইসলাম রফিক বলেন, আমি ভালুকা উপজেলার সকল মানুষের সুখে দুঃখে তাদের পাশে ছিলাম, আছি, আগামী দিনেও থাকবো এবং দল থেকে আমাকে ভালুকা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে মনোনিত করলে আমি দলকে সুশৃঙ্খলভাবে সাজিয়ে মডেল হিসেবে ভালুকা উপজেলা আওয়ামী লীগকে জননেত্রী দেশরত্ন শেষ হাসিনার কাছে উপস্থাপন করবো। সরকারের উন্নয়নের দূরদর্শী চিন্তাকে বাস্তবে রূপ দিতে, ভিশন ২০৪১ কে সফল করতে উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার জন্য দলীয় নেতাকর্মী ও উপজেলার সর্বস্তরের জনগণের দোয়া ও সমর্থন কামনা করছি।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Titans It Solution