মঙ্গলবার, ০৫ Jul ২০২২, ১২:৩৭ অপরাহ্ন

বাঘায় ছাত্র পেটানো সেই শিক্ষক গ্রেপ্তার

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি:: রাজশাহীর বাঘায় ছাত্রকে পিটিয়ে নির্যাতনের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় মাদ্রাসার শিক্ষক মেজবা ওয়াদুদ শাহরিয়ার ডলারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বুধবার (১৫ জুন) রাতে তাকে গ্রেপ্তার করে পরেরদিন বৃহস্পতিবার আদালতে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, টাকা চুরির সন্দেহে গত মঙ্গলবার রাতে আল কারীম হিফ্জুল কুরআন মাদ্রাসা ও ইসলামি কিন্ডার গার্ডেনের মক্তব শ্রেণির ছাত্র জুবাইর হোসেন (১১)কে মারপিট করে নির্যাতন করেন ওই মাদ্রাসার শিক্ষক মেজবা ওয়াদুদ শাহরিয়ার ডলার ।

বুধবার (১৫ জুন) বিকেলে আহত ছাত্র জুবাইর হোসেন (১১)কে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে ছাত্রের পিতা জিল্লুর রহমান বাদি হয়ে শিক্ষক মেজবা ওয়াদুদ শাহরিয়ার ডলারের বিরুদ্ধে জুবাইর হোসেনকে মারপিট করে নিয়াতনের অভিযোগে মামলা করেন। এই মামলায় মাদ্রাসার শিক্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মাদ্রাসাটি উপজেলার তুলসিপুর (সোয়দপুর) গ্রামে প্রতিষ্ঠিত।

জুবাইর হোসেন উপজেলার মনিগ্রাম ইউনিয়নের মনিগ্রাম দক্ষিন পাড়ার বাসিন্দা জিল্লুর রহমানের ছেলে। করোনার কারনে স্কুল বন্ধ থাকায় জুবাইর হোসেনকে মাদ্রাসায় ভর্তি করে পরিবার। এর আগে মনিগ্রাম প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ত সে।

জিল্লুর রহমান জানান, মঙ্গলবার (১৪ জুন) রাতে তার ছেলেকে টাকার চুরির সন্দেহে বেধড়ক মারপিট করে নির্যাতন করে। বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টায় মাদ্রাসার পাশের বাড়ির এক লোক মারফত বিষয়টি জানার পর তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করি। ছেলে টাকা চুরির সাথে জড়িত নয় বলে দাবি তার।

মাদ্রাসার সুপার মেজবা ওয়াদুদ শাহরিয়ার ডলারের দাবি, মাদ্রসার পাশের মুদি দোকারদার সেন্টুর দোকানে এর আগে টাকা চুরি হয়। এতে জুবাইর হোসেনকে সন্দেহ করা হয়। পরে তল্লাশি করে তার কাছে ২২০ টাকা পাওয়া যায়। এজন্য তাকে শাসন করা হয়েছে। মুদি ব্যবসায়ী সেন্টুর মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করলেও তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

বাঘা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল করিম বলেন, শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের কওে শিক্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়। বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Titans It Solution