মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:৫৪ পূর্বাহ্ন

দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রাজশাহী ও পাবনায়, ৭.৮ ডিগ্রি

রাজশাহী প্রতিনিধি:: রাজশাহী ও পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলায় আজ বুধবার (১১ জানুয়ারি) দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। দুই জেলায় আজ ভোরে ৭ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে।

রাজশাহীতে চলতি শীত মৌসুমে তাপমাত্রা ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরেই ছিল। কয়েকদিন ধরে চলছিল মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। কিন্তু আজ তাপমাত্রা ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে যাওয়ায় মৃদু শৈতপ্রবাহ মাঝারি শৈত্যপ্রবাহে রূপ নিয়েছে।

আবহাওয়া অফিসের মতে, তাপমাত্রা ৮ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে থাকলে তা মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। আর ৬ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস হলো মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ। ৪ থেকে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসকে তীব্র এবং ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচের তাপমাত্রাকে অতি তীব্র শৈত্যপ্রবাহ ধরা হয়।

রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক হেলেন খান জানান, এবার শীত মৌসুমে রাজশাহীর তাপমাত্রা ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরেই ছিল। কয়েকদিন ধরে চলছিল মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ। আজ ভোরে তাপমাত্রা ৭ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে গেছে। এটি দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

এদিকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহের কারণে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে কনকনে ঠান্ডা বাতাস বয়ে যাওয়ার কারণে শীত অনুভূত হচ্ছে বেশি। সকাল থেকে রাস্তার লোকজনের চলাফেরাও কম। নিম্ন আয়ের মানুষকে খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করতে দেখা গেছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, খুলনা বিভাগের যশোর ও চুয়াডাঙ্গাসহ রাজশাহী এবং রংপুর বিভাগের ১৬ জেলার ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। তবে ৭২ ঘণ্টা পর তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে পারে। এ সময় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিও হতে পারে বলেও আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Titans It Solution