মঙ্গলবার, ০৫ Jul ২০২২, ১২:৫১ অপরাহ্ন

টেস্টে ফেরা এনামুল হক বিজয় কাল যাচ্ছেন উইন্ডিজ

স্পোর্টস রিপোর্টার, ই-কণ্ঠটোয়েন্টিফোর ডটকম ॥ আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারটাই তেমন সমৃদ্ধ হয়নি। ওয়ানডে ক্রিকেটেই কিছুটা লম্বা সময় বাংলাদেশ দলের জার্সি গায়ে চড়িয়েছেন। সেই ফরমেটেও সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন ২০১৯ সালে। তবে এবার ঘরোয়া লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেট আসরে রানের ফোয়ারা ছুটিয়ে বিশ^রেকর্ড গড়া এনামুল হক বিজয় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি২০ দলে ফেরেন।

দুই সিরিজ খেলার জন্য আগামী ২২ জুন রাতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ রওনা হওয়ার কথা ছিল বিজয়ের। কিন্তু ২৯ বছর বয়সী এ উইকেটরক্ষক ব্যাটারকে ৬ দিন আগেই রওনা দিতে হচ্ছে। মিডলঅর্ডার ব্যাটার ইয়াসির আলী রাব্বি ইনজুরিতে টেস্ট সিরিজ থেকে ছিটকে যাওয়াতে বদলি হিসেবে বিজয়কে বুধবার রাতে টেস্ট স্কোয়াডে যোগ করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। আজই তিনি উইন্ডিজ রওনা হবেন। তবে বৃহস্পতিবার প্রথম টেস্ট শুরু হয়ে গেছে, তাই সেন্ট লুসিয়াতে দ্বিতীয় টেস্ট খেলার সুযোগ থাকবে এ টপঅর্ডার ব্যাটারের। ৮ বছর পর টেস্ট দলে ফিরলেন তিনি।

সেন্ট লুসিয়াতে ২০১৪ সালে ক্যারিয়ারের চতুর্থ ও সর্বশেষ টেস্ট খেলেছেন বিজয়। দুই ইনিংসে ৯ আর ০ করে আউট হওয়ার পর দল থেকেই বাদ পড়েন। সেই সেন্ট লুসিয়াতেই আবার নতুন করে শুরুর অপেক্ষা তার। ২৪ জুন এই ভেন্যুতে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ-উইন্ডিজ।

বৃহস্পতিবারই এ্যান্টিগায় সিরিজের প্রথম টেস্ট শুরু হয়েছে। তাই খেলার সুযোগ নেই বিজয়ের। কিন্তু দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর অনেক আগেই ক্যারিবীয় দ্বীপে পৌঁছে যাবেন তিনি। তাই সুযোগ থাকবে সেন্ট লুসিয়ায় অনুষ্ঠিতব্য সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে খেলার। সে ক্ষেত্রে ৮ বছর পর ক্যারিয়ারের পঞ্চম টেস্ট খেলতে নামবেন তিনি। ২০১৩ সালের মার্চে গলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয় বিজয়ের।

সেই বছর অক্টোবরে সফরকারী নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ২ টেস্ট খেলেন। পরবর্তী বছর সেপ্টেম্বরে যান ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে এবং সেন্ট লুসিয়াতে একটিই ম্যাচ খেলেন। সব মিলিয়ে ৪ টেস্টের ৮ ইনিংসে তার রান মাত্র ৭৩, সর্বোচ্চ ২২! ২ টেস্ট খেলেছেন দেশের মাটিতে এবং ২ টেস্ট খেলেছেন বিদেশে। তবে, কোনটাতেই আলো ছড়াতে পারেননি। এর মধ্যে অবশ্য প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে অনেক অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন এ ওপেনার। ১০৫টি প্রথম শ্রেণীর ম্যাচ খেলে ৪৫.৩২ গড়ে ৭৪৭৯ রান করেছেন তিনি। সর্বোচ্চ ২১৬ রানের ইনিংস আছে ২২টি সেঞ্চুরির মধ্যে। তবে, সর্বশেষ জাতীয় ক্রিকেট লীগে (এনসিএল) তেমন সুবিধা করতে পারেননি।

৬ ম্যাচের ৯ ইনিংসে ২ ফিফটিতে ২৩.২৫ গড়ে মাত্র ১৮৬ রান করেছেন। সর্বোচ্চ ৮৪ রানের একটি ইনিংস খেলতে পেরেছেন। আর এ বছরের শুরুতে হওয়া বাংলাদেশ ক্রিকেট লীগের (বিসিএল) ৪ ম্যাচে ৬ ইনিংসে ৩৫ গড়ে ২১০ রান করেন ২ ফিফটি হাঁকিয়ে। সর্বোচ্চ ৮৮।
সর্বশেষ দুটি প্রথম শ্রেণীর প্রতিযোগিতায় আহামরি কিছু না করতে পারলেও টেস্ট দলে ফিরেছেন বিজয়। এর পেছনে মূলত এবার লিস্ট ‘এ’ আসর ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লীগে (ডিপিএল) ১১৩৮ রান করেই সবার সুনজরে এসেছেন তিনি।

৫ ফিফটির পাশে সেঞ্চুরি ছিল ৪টি। সর্বোচ্চ অপরাজিত ১৫১। আর সে কারণেই ৮ বছর পর আবার ডাক পেলেন টেস্টে। ইয়াসির রাব্বি পিঠের ইনজুরিতে ছিটকে যাওয়াতেই ফেরাটা হয়েছে বিজয়ের। এখন শুধু মাঠে নামার অপেক্ষা।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Titans It Solution