বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৪৩ অপরাহ্ন

খতিয়া ব্রিজে পাল্টে যাবে দোহার-নবাবগঞ্জের জনপদ

স্টাফ রিপোর্টারঃ পিছিয়ে থাকা নবাবগঞ্জ উপজেলাকে উন্নয়নের মহাসড়কে নিয়ে যাওয়ার একমাত্র স্বপ্নদ্রষ্টা প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা ঢাকা-১ আসনের সংসদ সদস্য সালমান ফজলুর রহমান এমপি। তার সুদক্ষ নেতৃত্বে দোহার-নবাবগঞ্জবাসী এগিয়ে যাচ্ছে। কালিগঙ্গা নদীর ওপর ৪৯ কোটি ৩২ লাখ টাকা ব্যয় নির্মিত খতিয়া-মানিকনগর রাস্তার ৩৬০ মিটার দীর্ঘ গার্ডার ব্রিজ পাল্টে দেবে শোল্লা ইউনিয়নসহ দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলাবাসীর জীবন।

ব্রিজের নির্মাণ শেষ হলেও জমি সংক্রান্ত আইনি জটিলতা থাকায় অ্যাপ্রোচের কাজ বন্ধ ছিল। আইনি জটিলতা সমাধান হওয়ায় বর্তমানে অ্যাপ্রোচের কাজ দ্রুত শেষের দিকে। ব্রিজটি নির্মাণের ফলে ফরিদপুর, দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলার মানুষের ঢাকাসহ দেশের উত্তর, পশ্চিম ও পূর্বাঞ্চলের জেলার সঙ্গে সরাসরি সড়কপথে কম খরচে, কম সময়ে বিনা ঝামেলায় দ্রুত যোগাযোগ করতে পারবে ঢাকার উত্তরা, সাভার, ধামরাই, মানিকগঞ্জ, গাজীপুর, টাঙ্গাইলবাসী।

এ ব্যাপারে নবাবগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী তরুণ কুমার বৈদ্য জানান, করোনা পরিস্থিতির কারণে দীর্ঘদিন অ্যাপ্রোচের কাজ বন্ধ থাকার পর পুনরায় নির্মাণকাজ চালু করা হয়েছে। কোনো ধরনের সমস্যা না হলে আগামী ডিসেম্বরে কাজ শেষ করতে পারবো।

শোল্লা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দেওয়ান তুহিনুর রহমান তুহিন জানান, দুইপাড়ের মানুষ নৌকায় পারাপারে দীর্ঘ সময় লাগার কারণে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হতো। এই এলাকায় অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও নাগরিক সুবিধা বাড়াতে ব্রিজ নির্মাণে গ্রামের মানুষের চলাচল আরও সহজ হবে। অর্থনৈতিকভাবে এই এলাকাটি আরও সমৃদ্ধ হবে।

নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার এইচএম সালাউদ্দীন মনজু বলেন, আইনি জটিলতা কাটিয়ে অ্যাপ্রোচের নির্মাণের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। আমাদের অভিভাবক সংসদ সদস্য সালমান এফ রহমান এমপি মহোদয়ের দিকনির্দেশনা মোতাবেক বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড মানসম্মত করতে দেখভাল করার নির্দেশ দিয়েছেন। আশা করি ব্রিজ উদ্বোধনের মধ্যে দিয়ে এই অঞ্চলের উন্নয়নের নতুন সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচন হবে। যোগাযোগ ও অর্থনৈতিকভাবে আরও সমৃদ্ধ উন্নয়নের নতুন দিগন্তের সূচনা হবে।

নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ নাসির উদ্দিন আহমেদ ঝিলু বলেন, আমাদের অভিভাবক প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা ঢাকা-১ দোহার-নবাবগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য সালমান ফজলুর রহমান এমপির ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় দ্রুত সময়ে এই ব্রিজটির কাজ শেষ হয়েছে। অ্যাপ্রোচের জমি সংক্রান্ত আইনি জটিলতা থাকায় কাজ শেষ করতে কিছুটা সমস্যা হয়েছিল। দুই জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা হওয়ায় প্রথমে কিছুটা সমস্যা হয়েছিল পরে সমঝোতার মাধ্যমে এবং আমাদের অভিভাবক সংসদ সদস্য সালমান এফ রহমান এমপির হস্তক্ষেপে সমাধান করতে সমর্থ হয়েছি। আশা করি দ্রুত অ্যাপ্রোচের কাজ শেষ হলেই উদ্বোধন করতে পারবো।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Titans It Solution