শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১০:৩৭ অপরাহ্ন

ক্যারিয়ার সেরা র‌্যাংকিংয়ে লিটন দাস

স্পোর্টস ডেস্ক:: নিউ জিল্যান্ডে ইতিহাস গড়া সফরে প্রথম টেস্টে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যান-বোলারদের পারফরম্যান্স ছিল প্রশংসনীয়। দ্বিতীয় টেস্টে সফরকারীরা অসহায় আত্মসমর্পণ করলেও ক্রাইস্টচার্চে সমহিমায় উজ্জ্বল ছিলেন লিটন দাস। সর্বশেষ প্রকাশিত আইসিসি টেস্ট র‌্যাংকিংয়ে ক্যারিয়ার সেরা উন্নতি হয়েছে তার।

এছাড়া নিজ নিজ ক্ষেত্রে নৈপুণ্য দেখিয়ে র‌্যাংকিংয়ে এগিয়েছেন মুমিনুল হক, নাজমুল হোসেন শান্ত ও ইবাদত হোসেন।

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ এই দুই ম্যাচের সিরিজে ১৯৬ রান করে লিটন ব্যাটসম্যান তালিকায় ১৭ ধাপ এগিয়ে ১৫তম স্থানে। অধিনায়ক মুমিনুলের উন্নতি ৮ ধাপ, ৩৭ নম্বরে তিনি। মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে প্রথম ইনিংসে ৮৮ রানের দারুণ ইনিংস খেলেন মুমিনুল, সিরিজে তার সংগ্রহ ১৩৮ রান। ব্যাটিংয়ে উল্লেখযোগ্য অবদান রেখে শান্ত ২১ ধাপ লাফ দিয়ে ৮৭তম স্থানে। প্রথম টেস্টে ৬৪ রানের ঝকঝকে ইনিংস ছিল তার, মোট রান ১১৪।

প্রথম টেস্টে ইনিংসে ৬ উইকেট নিয়ে ঐতিহাসিক জয়ে অবদান রাখেন বাংলাদেশের ফাস্ট বোলার ইবাদত। এই ২৮ বছর বয়সী ডানহাতি বোলার সিরিজে ৯ উইকেট নিয়ে ৮৮তম স্থানে। তার উন্নতি হয়েছে ১৭ ধাপ।

নিউ জিল্যান্ডের ফাস্ট বোলার আট ধাপ এগিয়ে ক্যারিয়ারসেরা তিন নম্বরে। ক্রাইস্টচার্চে ছয়টিসহ ৮ উইকেট নিয়ে সিরিজ শেষ করে আট ধাপ এগিয়েছেন ২৭ বছর বয়সী বোলার। নিউ জিল্যান্ডের পঞ্চম বোলার হিসেবে ৮২৫ রেটিং পয়েন্ট ছুঁলেন জেমিসন। তার আগে রিচার্ড হ্যাজলি, নিল ওয়াগনার, টিম সাউদি ও ট্রেন্ট বোল্টের ছিল এই অর্জন।

সাপ্তাহিক হালনাগাদ হওয়া র‌্যাংকিংয়ে তিন ধাপ এগিয়ে ১২তম স্থানে জেমিসনের সতীর্থ বোলার ট্রেন্ট বোল্ট। ক্রাইস্টচার্চে ক্যারিয়ারের তিনশ উইকেটের মাইলফলক ছোঁয়া এই পেসার সিরিজে নেন ৯ উইকেট।

নিউ জিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে অধিনায়ক টম ল্যাথাম দুই ধাপ এগিয়ে ১১তম স্থানে। সিরিজে ডাবল সেঞ্চুরিসহ ২৬৭ রান করেন তিনি। দুটি সেঞ্চুরিসহ ডেভন কনওয়ে মোট ২৪৪ রান করে ১৮ ধাপ এগিয়ে ২৯ নম্বরে। মাত্র পঞ্চম টেস্ট খেললেন তিনি। আর ক্যারিয়ারের শেষ টেস্ট খেলে রস টেলরের অবস্থান ২৮তম। ২০১৩ সালে ক্যারিয়ারসেরা চতুর্থ হন তিনি ৮৭১ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020  E-Kantha24
Technical Helped by Titans It Solution